শুরু হতে যাচ্ছে ১৬তম এশিয়ান আর্ট বিয়েনাল বাংলাদেশ ২০১৪

asian_biennale_bd2014। ফরিদা ইয়াসমীন রত্না ।

আগামী ১ ডিসেম্বর ২০১৪ থেকে মাসব্যাপী শুরু হতে যাচ্ছে শিল্পের সর্ববৃহৎ আসর, শিল্পের মহাযজ্ঞ, বাংলাদেশের শিল্পকলা জগতের সবচেয়ে আলোকিত দ্যুতিময় প্ল্যাটফর্ম ১৬তম এশিয়ান আর্ট বিয়েনাল বাংলাদেশ ২০১৪। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে শিল্পজগতের এই সর্ববৃহৎ আসর।

শিল্পের সর্ববৃহৎ মিলনমেলা মহাযজ্ঞ এশিয়ান বিয়েনাল। শিল্পী তার শিল্প-সাধনার সর্বোচ্চ শিল্পপ্রয়াস দেখাতে চান এই বিয়েনালে। কারণ, এটি একটি আন্তর্জাতিক পরিমন্ডল। শিল্পী তার শিল্পের সমৃদ্ধি, বিকাশ, মেধা, স্বাতন্ত্র্যের উজ্জ্বল উপস্থাপনশৈলী উন্মুক্ত করেন এই আন্তর্জাতিক বিয়েনাল পরিসরে। প্রতিনিয়ত নিরীক্ষার মাধ্যমে ব্যক্তিগত উৎকর্ষ, একাগ্রতা, স্বতন্ত্র আশ্চর্যময়তার কঠিন সাধন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সৃষ্টির পূর্ণতার স্বাক্ষর শিল্পীর শিল্প নির্মাণ। বিয়েনালের মাধ্যমে শিল্পী তার নিজস্ব শিল্পদ্বার উন্মোচন করেন। এই একটি উপযুক্ত প্ল্যাটফর্ম। শিল্পবিকাশের গতিধারায় এশিয়ান বিয়েনাল এক অনন্য ঐতিহাসিক পদক্ষেপ। জ্ঞান, প্রজ্ঞায়, গাম্ভীর্যে এবারের বিয়েনালের রয়েছে এক নতুন মাত্রা যোগ। আর সেটি হচ্ছে পারফরম্যান্স আর্ট। আয়োজকমন্ডলীদের পক্ষ থেকে বলা হয়, এবারের ১৬তম বিয়েনাল আর্ট অভিন্ন অনন্য। চারুকলাবিষয়ক নানা চর্চার মধ্যে একটি বৃহৎ পরিমন্ডল এখন পারফরম্যান্স আর্ট শাখা। শিল্পের আধুনিকায়নে পারফরম্যান্স আর্ট শিল্পের অন্যান্য শাখার মধ্যে একটি বিশাল জায়গা করে নিয়েছে। এবারে বিয়েনালে তাই পারফরম্যান্স আর্ট যুক্ত হয়েছে বিশাল কলেবরে, যা ১৬ তম বিয়েনালের প্রজ্ঞা, ভাব-গাম্ভীর্যে আনবে এক নতুন মাত্রা, ভিন্ন আস্বাদন। শিল্পের গতিমান ধারায় গতিশীল একটি আখ্যান পারফরম্যান্স আর্ট। এবারের ১৬তম বিয়েনালে পারফরম্যান্স আর্টের সাবলীল উপস্থাপন এক নতুন প্রাণের সঞ্চার করবে বলে আয়োজকমন্ডলী বিশ্বাস করেন। বিগত ১৫টি বিয়েনালে পারফরম্যান্স আর্টের অনুপস্থিতি বিয়েনালের উজ্জ্বলতায়, জৌলুশতায়, প্রাণময়তায় একটি বড় শূন্যতা ছিল বলে বিয়েনাল আয়োজকমন্ডলী আক্ষেপ করেন।

১৬তম এশিয়ান আর্ট বিয়েনাল, বাংলাদেশ ২০১৪। শিল্পের এই মহাযজ্ঞকে ঘিরে চলছে ব্যাপক প্রস্তুতি। পুরো শিল্পকলা একাডেমীতে এখন উৎসব উৎসব রব। দম ফেলার মতো এতটুকু ফুরসত নেই আয়োজকমন্ডলীর। ১ ডিসেম্বরের জাঁকজমকপূর্ণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণপত্র প্রস্তুতকরণ, শিল্পকলা একাডেমীর জাতীয় চিত্রশালার অভ্যন্তরীণ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম, বিয়েনালের অন্যতম ভেন্যু হিসেবে খ্যাত শিল্পকলা একাডেমীকে সুসজ্জিতকরণ, বিদেশি ডেলিগেটসদের সঙ্গে প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রক্ষা করা, বিদেশি অতিথিদের থাকা-খাওয়া, তাদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তাবলয় কর্মসূচি, জুরিবোর্ডের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা, আমন্ত্রিত দেশি-বিদেশি শিল্পীদের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করা, গ্যালারিগুলোতে শিল্পীদের সব ধরনের চিত্রকর্ম ডিসপ্লে করা থেকে শুরু করে ২ ডিসেম্বরের সেসিমিনারের আয়োজন, তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে অনুষ্ঠানবিষয়ক প্রতি মুহূর্তের তথ্য আদান-প্রদান এবং দেশি-বিদেশি অংশগ্রহণকারী শিল্পীদের শিল্পকর্মের ধারাবাহিক প্রতিবেদন তৈরি করা। তথ্য আপডেট রাখা এসবই এবারের ১৬তম এশিয়ান আর্ট বিয়েনালের প্রস্তুতিমূলক কর্মকান্ডের বিশাল অধ্যায়। আয়োজকমন্ডলীদের পক্ষ থেকে বলা হয়, শিল্পকলাবিষয়ক এত বড় একটি ইভেন্ট বিয়েনালের প্রস্তুতিতে আমরা পুরো আয়োজক কমিটি অনেক কম সময় পাই। এত বড় একটি অনুষ্ঠানের গুণগত মান ঠিকঠাক বজায় রাখতে গেলে পুরো বছরজুড়েই বিয়েনাল প্রস্তুতি নিয়ে কাজ করতে হয়। সেখানে আমরা মাত্র দু-তিন মাসের প্রস্তুতিতে এত বড় একটি ইভেন্টের প্রস্তুতিমূলক কাজ করে থাকি। তাই অনেক রকম দুর্বলতা, অপ্রতুলতা, ফাঁকফোকর, প্রতিবন্ধকতা, থাকে পুরো অনুষ্ঠান ঘিরে। কিন্তু সব রকম সীমাবদ্ধতা পেছনে ফেলে আমরা পুরো আয়োজক কমিটি এবারের ১৬তম এশিয়ান আর্ট বিয়েনাল, ২০১৪ আয়োজন করতে যাচ্ছি। তথ্য ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের অপরিসীম সাহায্য সহযোগিতা, শিল্পকলা একাডেমীর মহাপরিচালকের দিকনির্দেশনা এবং অনুষ্ঠান কমিটির সিনিয়র সদস্যদের সহযোগিতায় আমরা আমাদের মতো করে গুছিয়ে নিয়েছি বিয়েনালের সব রকম প্রস্তুতিমূলক কাজ। আশা করছি, একটি সফল সুন্দর গোছানো এবং ভিন্ন রকমের বিয়েনাল অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ পর্যন্ত।

সরকারি পৃষ্ঠপোষকতায় যেহেতু বিয়েনাল আর্ট ফেস্টিভ্যাল হয়ে থাকে, তাই এ রকম অনুষ্ঠানে বাড়তি চমক, ঝলকানি, চাকচিক্য কম প্রতীয়মান হয়। ব্যক্তিগত মালিকানাধীন শিল্পবিষয়ক উৎসবগুলো যেমন ঢাকা আর্ট সামিট ব্যক্তিমালিকানায় হয়ে থাকে। বড় বাজেট নিয়ে তারা উৎসবের আয়োজন করে। তারা স্বাধীনভাবে যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারে। কিন্তু বিয়েনালের ক্ষেত্রে আমরা আয়োজকমন্ডলীরা নিজেরা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারি না। এগুলো ছোট ছোট বিচ্ছিন্ন কিছু প্রতিবন্ধকতা বিয়েনালের ক্ষেত্রে। আমরা এসব বাধা পেছনে ফেলে ১৬তম এশিয়ান আর্ট বিয়েনালের সব রকম প্রস্তুতি সম্পন্ন করতে সক্ষম হয়েছি। বললেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর বিয়েনাল আয়োজন কমিটির সদস্যবৃন্দ।

এশিয়ান ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় ২৮টি দেশ (এ সংখ্যা আরও বাড়তে পারে পরবর্তীকালে) এবারের ১৬তম এশিয়ান বিয়েনাল আর্টে অংশগ্রহণ করছে। সম্মানিত জুরিবোর্ডে থাকছেন বাংলাদেশের ২ জন এবং তুরস্ক, ভারত ও চায়নার জুরিগণ। এ ছাড়া বিয়েনাল-সংক্রান্ত একটি যুগোপযোগী সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে ২ ডিসেম্বর, ২০১৪ বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীতে। এতে দেশি-বিদেশি বরেণ্য শিল্পী, কলাকুশলী, শিল্পবোদ্ধা, বিদেশি ডেলিগেটসরা তাদের বক্তব্য দেবেন। এবারের বিয়েনালে সেমিনারের বিষয় নির্ধারণ করা হয়েছে: ‘Contemporary New Media Art Practices’।

লোকবল, অর্থবলের অপর্যাপ্ততা একটি বড় বিষয় এশিয়ান বিয়েনালে। লোকবল, অর্থবল, শিল্পানুরাগী মানসিকতার অপ্রতুলতা একটি বড় ধাক্কা বিয়েনালে। চিন্তাভাবনার পরিসরকে পরিস্ফুটিত করা যায় লোকবল, অর্থবল পর্যাপ্ত থাকলে। এটি একটি ভাবনার বিষয়।

সমকালীন শিল্পীদের নানা রকম প্রবণতা, নানা ধ্যানধারণা, নানা ভাবনার মিশ্রণ ঘটবে এই ১৬তম বিয়েনালে অংশগ্রহণকারী শিল্পীদের কাজে। সুন্দরের আরাধনাই পরিস্ফুটিত হবে প্রতিটি শিল্পকর্মে। সব মিলিয়ে এ সময়ের নানা বিষয়-আশয়, সমকালীন চিন্তা-শৈলীর অবগাহন ১৬তম বিয়েনাল আর্ট, বাংলাদেশ ২০১৪।

আগামী ১ ডিসেম্বর ২০১৪ থেকে সাধারণ দর্শক, শিল্পরসিক, শিল্পবোদ্ধা, সর্বোপরি সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে ১৬তম এশিয়ান আর্ট বিয়েনালের দ্বার। বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে উদ্বোধন করবেন ১৬তম বিয়েনাল। আমাদের সবার জন্য নিশ্চয়ই এক অন্য রকম প্রাণময় সুন্দরম ১৬তম এশিয়ান আর্ট বিয়েনাল প্রতীক্ষা করছে।

faridasplanet@yahoo.com

 

FacebookTwitterGoogle+Google GmailPinterestLinkedIn

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

ফেসবুকে চিত্রম

সর্বশেষ সংবাদ

মাসিক আর্কাইভ

নিউজলেটার পেতে সাবসক্রাইব করুন

     Read More »