জনপ্রিয় শিল্পী জাপানের ইয়াওই কুসামা

 

kusama

।মাহমুদ আলম সৈকত। প্রদর্শনশালার জরিপে ২০১৪ সালের সবচেয়ে জনপ্রিয় শিল্পী হিসেবে নাম উঠে এসেছে একজন নারী শিল্পীর; তিনি হলেন জাপানের ইয়াওই কুসামা। যদিও আমেরিকার প্রদর্শনশালাগুলোর বরাতে জানা যাচ্ছে যে গত ছয় বছর যাবৎ জরিপে আসা জনপ্রিয় শিল্পীদের ৭৩ শতাংশই পুরুষ।

`দ্য আর্ট নিউজপেপার’ এর একটি প্রতিবেদন জানাচ্ছে; এন্ডি ওঅরহল, এলস্ওর্থ কেলি এবং জেসপার জোন্স- এই ত্রয়ির প্রত্যেকেরই সাতটি করে প্রদর্শনী হয়েছে এই সময়কালে। তালিকায় সবচে বেশি প্রদর্শিত নারী শিল্পী হিসেবে আছেন কারা ওয়াকার, চারটি প্রদর্শনী হয়েছে এই শিল্পীর। যাই হোক, ইয়াওই কুসামার এই সাফল্যই জানান দিচ্ছে যে দর্শকরা নারী শিল্পীদের শিল্পরস গ্রহণ করা না করা বিষয়ে প্রভাবিত নন।

একই সময়কালের দ্বিতীয় সফল একক শিল্প প্রদর্শনীটি হয়েছে মারিনা আব্রামোভিচের। নিউইয়র্কের মিউজিয়াম অব মডার্ন আর্ট সেন্টারে অনুষ্ঠিত মারিনা আব্রামোভিচের ওই রেট্রোস্পেকটিভে গড়ে প্রতিদিন ৭১২০ জন দর্শক হাজির হয়েছিলেন। প্রদর্শনীর অংশ হিসেবেই, শিল্পী নিজেই (মারিনা আব্রামোভিচ) সেখানে নিস্পন্দভাবে অবস্থান করেছিলেন। তাঁর এই রেকর্ডটি হাতছাড়া হয় ২০০৭-এ এসে, শিল্পী রিচার্ড সেরা’র কাছে। সেরা’র ‘মনুমেন্টাল স্কাল্পচার’ দেখেছিল প্রতিদিন গড়ে ৮৫৮৫ জন দর্শক।

কেবল বিখ্যাত শিল্পীদের নামই প্রর্দশনীতে দর্শক টেনে আনে এই প্রথাগত ভাবনাকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়েছেন, সুইস শিল্পী (এবং নারী) পিপিলোত্তি রিস্ট, একই সময়কালে তালিকায় চতুর্থ স্থানে আছেন তিনি। মিউজিয়াম অব মডার্ন আর্ট সেন্টারে প্রদর্শিত তাঁর স্থাপনাশিল্পটি দেখেছেন প্রতিদিন গড়ে ৬১৮৬ জন দর্শক।

`দ্য আর্ট নিউজপেপার’ আরও জানাচ্ছে, পৃথিবীর সব বড় বড় আর্টডিলারগণ পুরুষশিল্পীদের শিল্পকর্ম একক প্রদর্শনের ব্যবস্থা করেছেন গত ছয় বছরে গড়ে সাত বার (শিল্পী প্রতি)। যেখানে নারী শিল্পীরা একই সময়কালে এক বা একাধিকবার তাদের শিল্পকর্ম প্রদর্শন করেছেন ওই একই আর্টডিলারদের মাধ্যমে।

কুসামা’র এই সাফল্যের পেছনে একটি অসামান্য বিষয় রয়েছে। ৮৬ বর্ষীয় কুসামা, ১৯৭৭ সাল থেকে টোকিওর একটি মানসিক স্বাস্থ কেন্দ্রে সেচ্ছাসেবক হিসেবে যুক্ত আছেন। এই কেন্দ্রটিই তাঁকে প্রতিনিয়ত প্রেরণা যুগিয়ে যাচ্ছে বলেই তিনি জানান। শিল্পী তাঁর সমধিক বিখ্যাত পোলকা-ডট ও মিরর ইন্সটলেশন-এর মাধ্যমে দক্ষিণ ও মধ্য আমেরিকা সহ বিশ্বের প্রায় ২০ লক্ষ মানুষের আগ্রহের বিষয়ে মধ্যমণিতে আছেন। সম্প্রতি টোকিওতে প্রদর্শিত হচ্ছে শিল্পী ইয়াওই কুসামা’র আরেকটি রেট্রোস্পেকটিভ – ‘এন রুট টু নিউ দিল্লি’।

 

FacebookTwitterGoogle+Google GmailPinterestLinkedIn

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

ফেসবুকে চিত্রম

সর্বশেষ সংবাদ

মাসিক আর্কাইভ

নিউজলেটার পেতে সাবসক্রাইব করুন

     Read More »