ভেনিস বিয়েনাল- অল দ্য ওয়ার্ল্ডস ফিউচার

venice_biennale15

।মিজানুর রহমান। ভালোবাসার নগরী ভেনিসে বসতে যাচ্ছে বিশ্বের সমসাময়িক শিল্পকলার সবচেয়ে বড় প্রদর্শনী। আগামী ৯ মে পর্দা উঠছে দ্য ভেনিস বিয়েনালের। এবারের প্রদর্শিনীর নাম দেওয়া হয়েছে ‘অল দ্য ওয়ার্ডস ফিউচার’ অর্থাৎ পৃথিবীর সব ভবিষ্যত। আক্ষরিক অর্থেই পৃথিবীর ভবিষ্যত শিল্পকলার মিলনমেলাই হয় এই প্রদর্শনীতে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিল্প ও শিল্পি মিলেমিশে একাকার হয়ে যায় ভালোবাসার নগরী ভেনিসে। যে ভালোবাসা দিয়ে এই প্রদর্শনীর শুরু করেছিলেন এক শতাব্দী আগে ১৮৯৫ সালে রাজা প্রথম আমবার্তো ও রানী মারগারিতা। আজও সে ভালোবাসা এতোটুকু মলীন হয়নি। বরং ডালপালা ছড়িয়ে ব্যপ্ত হয়েছে বিশ্বময়। বর্তমান বয়স ১২০ বছর। এই ফ্ল্যাটফর্মে প্রতি বিজোড় বছরে এসে জড়ো হয় বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের শিল্পীরা। এবারের প্রদর্শনীটি ৫৬তম। এবার অংশ নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন ৮৮ দেশের ১৩৬ জন শিল্পি। প্রদর্শনীটি চলবে সাত মাসেরও বেশ সময় ধরে। শেষ হবে ২২ নভেম্বর।

আলোচিত শিল্পীদের মধ্যে আছেন জোয়ান জোনাস যিনি মার্কিন যুক্তরাষ্টের প্রতিনিধিত্ব করবেন। দেশটি পাচ্ছে পাঁচটি গ্যালারি যাতে থাকবে ভিডিও, ড্রইং, অবজেক্ট ও শব্দ শিল্প। ফিলিপ রিজক, ওলাফ নিকোলি, হিতো স্টের্ল ও টবিয়াস জেলোনি প্রতিনিধিত্ব করবেন জার্মানির। যারা ওয়ার্ক, মাইগ্রেশন ও রিভল্ট থিমের ওপর এসব শিল্পকর্ম প্রদর্শন করবেন। এবারের আলাদা স্বাদ আনতে যাচ্ছেন ডেনিশ শিল্পী ডান ভো, যিনি নিপুন শিল্পকর্মে তৈরি করেছেন কয়েকটি টাকিলার বোতল।

নতুন কী?

এবারের প্রদর্শনীর নতুনত্ব ভাবতে গেলে প্রথমেই সামনে আসবে শুরুর দিন। যা সাধারণ শুরুর দিন থেকে এগিয়ে আনা হয়েছে এক মাস। এছাড়া বিশ্ব শিল্পকলায় অবদানের জন্য প্রথমবারের মত এবার প্রদর্শনীটিতে জায়গা পেয়েছে ফিলিপাইন। ৫১ বছর পর ফিরছে কায়রো।

সম্মাননা

৫৬তম প্রদর্শনীটিতে আজীবন সম্মাননা পাবেন ঘানার ভাষ্কর এল আনাতসুই। এছাড়া গোল্ডেন লায়ন বিশেষ সম্মাননা পাবেন সুসান ঘেজ। যিনি ৪০ বছর ধরে শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ের রেনেসাঁ সোসাইটির কিউরেটরের দায়িত্ব পালন করছেন। বর্তমানে একই বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্ট ইন্সটিটিউটের দায়িত্বে রয়েছেন।

পাশাপাশি যেসব অনুষ্ঠান চলবে

মূল প্রদর্শনীর বাহিরে পূরো সময়জুড়ে চলবে ৪৪টি সহযোগী ইভেন্ট। যেখানে অন্যতম হচ্ছে পাকিস্তানের শিল্পী রশিদ রানা ও ভারতের শিল্পী শিল্পা গুপ্তার যুগ্ম প্রদর্শনী। যার নাম ‘মাই ইস্ট ইজ ইয়োর ওয়েস্ট’।

সাইমন ড্যানি, যিনি এবারের মূল প্রদর্শনীতে নিউজিল্যান্ডের প্রতিনিধিত্ব করছেন তিনি আরও দুটি প্রদর্শনি রাখছেন ভেনিস বিমানবন্দর ও মারচিয়ানা লাইব্রেরিতে। যেটি ভাষ্কর্য ও ইন্সটলেশনের যুগ্ম প্রদর্শনী। এই কাজের বিষয় হচ্ছে রাজনৈতিক শক্তির সম্পর্ক।

FacebookTwitterGoogle+Google GmailPinterestLinkedIn

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

ফেসবুকে চিত্রম

সর্বশেষ সংবাদ

মাসিক আর্কাইভ

নিউজলেটার পেতে সাবসক্রাইব করুন

     Read More »