কথা-গান-কবিতায় ওয়াহিদুল হককে স্মরণ

ওয়াহিদুল হক

ওয়াহিদুল হক

।চিত্রম প্রতিবেদক। ওয়াহিদুল হক চলে গেছেন। কিন্তু এখনো দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা সুহৃদ, শিল্পীদের মনে প্রেরণাপুরুষ হয়ে বিরাজ করছেন তিনি। বাঙালি হয়ে মাথা উঁচু করে বেঁচে থাকার জন্য আজীবন মানুষ গড়েছেন, সংঘবদ্ধ করেছেন, পথ দেখিয়েছেন।

ছায়ানটসহ অসংখ্য সাংস্কৃতিক সংগঠন গড়ে তোলায় অগ্রগণ্য ব্যক্তি তিনি। সারা দেশে রবীন্দ্র সঙ্গীত চর্চায় মানুষকে আগ্রহী করে তোলার ক্ষেত্রে তার অবদান চিরস্মরণীয়। ২৭ জানুয়ারি তার মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ছায়ানটের শিল্পীরা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করলো এই গুণী ব্যক্তিত্বকে।

সেই টানেই ২৭ জানুয়ারি তার মৃত্যুবার্ষিকীতে ভোরে ধানমন্ডির ছায়ানট ভবনে এসে মিলিত হয়েছিলেন তার স্নেহস্পর্শ পাওয়া শিল্পী, বন্ধু, ভক্তরা। গানে গানে শ্রদ্ধা জানালেন সবাই।

এরপর বিকেলে অনুষ্ঠানের শুরু হয় ‘তুমি যে সুরের আগুন’ সম্মেলক গানটির মধ্য দিয়ে। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন খায়রুল আনাম শাকিল। বক্তব্য দেন ডা. সারওয়ার আলী। ওয়াহিদুল হক স্মারক বক্তৃতা দেন অধ্যাপক নুরুল আনোয়ার।

একক গানে অংশ নেন ইফ্ফাত আরা দেওয়ান, দলীয় পরিবেশনা করে ব্রতচারী নৃত্য সরোজ সংস্কৃতি-বৃত্ত। সরোজ সংস্কৃতি বৃত্ত সম্মেলক গান পরিবেশন করে, ‘আমার প্রাণের মানুষ, কবে আমি বাহির হলেম’।

দলীয় পরিবেশনায় অংশ নেয় গল্পবলা নালন্দা, শ্রুতিনাটক নালন্দা, একক পাঠ করেন দেবারতি রায় মৌলি, ‘গান্ধারীর আবেদন’ শীর্ষক দলীয় পরিবেশনায় অংশ নেয় কণ্ঠশীলন, দলীয় পরিবেশনা ব্রতচারী নৃত্য ব্রতচারী, ‘বাজাও তুমি কবি, ‘অরূপ তোমার বাণী’ শীর্ষক সম্মেলক গান পরিবেশন করেন জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ। জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শেষ হয় অনুষ্ঠান।

ছায়ানট আয়োজিত অনুষ্ঠানে গানে, কথায়, কবিতায় সবাই উচ্চারণ করল সংস্কৃতির পথ নির্মাণের মধ্য দিয়ে মানুষের কল্যাণ সাধন, মুক্তবুদ্ধি চর্চার পথে এগিয়ে যাওয়াই হবে ওয়াহিদুল হককে সঠিক সম্মান জানানো।

FacebookTwitterGoogle+Google GmailPinterestLinkedIn

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

ফেসবুকে চিত্রম

সর্বশেষ সংবাদ

মাসিক আর্কাইভ

নিউজলেটার পেতে সাবসক্রাইব করুন

     Read More »